শেখার পেছনের দর্শন

It is precisely in times of immunity from care that the soul should toughen itself beforehand for occasions of greater stress, and it is while fortune is kind that it should fortify itself against her violence.

– Seneca the Younger

আগের চ্যাপ্টারটা লেখার পেছনে একটা দর্শন আছে। এর পরে কথা বলেছি টেক্সট-বুকীয় তিনটা কনসেপ্ট নিয়ে। না বুঝলে আগানো ঠিক হবে না।

"মেশিন লার্নিং কী" চ্যাপ্টারে তিনটা কনসেপ্ট যদি বুঝতে পারেন ঠিকমতো - তাহলে বলব আপনার মেশিন লার্নিং শেখাটা পানির মতো সহজ হয়ে যাবে সামনে। আমার চাকরির ক্ষেত্রে প্রতিদিন দেখতে হয় অনেক সমস্যাকে। চেষ্টা করি ডাটা দিয়ে সমস্যার দিতে। আমাদের দেশে অধিকাংশ কাজ হয় ‘ধারণা’ দিয়ে। প্রচুর সিদ্ধান্ত ভুল হয় একারণে। ডাটা দিয়ে একটা প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলে সেই প্রশ্নের ডোমেইনের অনেক জিনিস জানতে হয় আগেভাগে। সেখানে মেশিন লার্নিং দিয়ে সমস্যাটার সমাধান করতে গেলে, অনেক ধারণা নিতে হয় জিনিসটা নিয়ে। ব্যাপারগুলো বিভিন্ন পার্সপেক্টিভ থেকে বোঝার জন্য প্রচুর বই পড়তে হয় আমাদের কাজের পাশাপাশি।

ডোমেইন নলেজের বাইরে এই মেশিন লার্নিং নিয়েই গত তিন বছরে ৫০টার মত বই দেখতে হয়েছে আমাকে। বইগুলো না পড়লে হয়তোবা ধারণাগুলো আসতো না আমার। এতো আগে। এই পঞ্চাশ বছর বয়সে। আমি দেখেছি সমস্যা এক - বিভিন্ন লেখক বিভিন্ন আঙ্গিক থেকে সমাধান করতে চেয়েছেন। একেবারে নতুন করে। সনাতন পদ্ধতি অগ্রাহ্য করে। কেন? যেটা হয়তোবা তিন চারটা বই পড়ে ধারণায় আসতো না আমার। একই সমস্যার সমাধানে বিভিন্ন লেখক বিভিন্ন আঙ্গিকে সমাধান দিয়েছেন তখন তার ব্যক্তিগত আন্ডারস্ট্যান্ডিংগুলো বলেছেন পাশাপাশি। আমি বলব সেই বিভিন্ন পার্সপেক্টিভএর পেছনের ‘দর্শন’ আমাকে চোখ খুলে দিয়েছে। আমাদের সমস্যার পেছনের দর্শনটা জানলে শিখতে সুবিধা হয়। কারণ তখন আমরা জানি কোথায় যেতে চাই আমরা? এখন বুঝি বিজ্ঞানের পেছনে ফিলোসফি বা দর্শন এর গুরুত্ব এত কেন?

আমার চাকরি জীবনের একটা বড় অংশ গিয়েছে প্রশিক্ষণ সিস্টেমের মধ্যে থেকে। ৮০এর কাছাকাছি প্রশিক্ষণ জুটেছে আমার কপালে। সেটা আমাকে দেখিয়েছে কিভাবে একটা নতুন জিনিস শিখতে হয় অল্প সময়ে। এটা একধরণের ‘লাইফ হ্যাক’। শিখেছি নিজের জীবন থেকে। যেকোন জিনিস শেখার পেছনের দর্শনটা জানলে শেখাটা সহজ হয়। একটা সমস্যার পেছনের দর্শনটা ঠিকমতো তুলে ধরতে পারলে, যাতে ভবিষ্যতে আপনার জন্য ওই সমস্যাটা সমাধান করতে আমাকে আর না লাগে সেভাবেই তৈরি করবো আপনাকে। দর্শনটা বুঝলে নিজে থেকেই জেনে যাবেন কোথায় যাবেন আপনি। দরকার হবে না আমাকে আর। রাস্তা দেখানোর দ্বায়িত্ব আমার। আমার ব্যক্তিগত প্রশিক্ষণের অভিজ্ঞতায় আপনাকে যেকোন সমস্যার পেছনের দর্শনটাকে ধরিয়ে দেবার চেষ্টা করবো। তাহলে শেখাটা খুব সহজ হয়ে পড়বে এই মেশিন লার্নিং নিয়ে।

থাকছেন তো সামনে?

কি আশা করবেন না এই বই থেকে

১. মেশিন লার্নিং একটা বিশাল জগৎ। আমার কাজ হচ্ছে আপনাকে হাঁটি হাঁটি পা পা করে ধরিয়ে দেবো মেশিন লার্নিং। শক্তিশালী ফাউন্ডেশনের জন্য যতোটুকু দর্শন দরকার সেটা আছে এখানে। আগের বইটাতে পাতা বেশি হওয়াতে অনেকে নিরুৎসাহিত হয়েছেন।

২. আমি ইচ্ছে করে 'অ্যালগরিদম' নিয়ে বেশি আলাপ করিনি। এটাকে পাঠ্যবই বানাতে চাইনি বলে এই ব্যবস্থা। আমার বইগুলো পড়ে মেশিন লার্নিং ব্যবহার করার ধারণা হলে পরে যাবো ওই দিকে। 'পিএইচডি' করবেন ভালো কথা, ভালো ব্যবহারকারী না হতে পারলে ভেতরের কমপ্লেক্সিটি ধরবেন কিভাবে?

৩. বিশ্বাস রাখুন আমার ২৮ বছরের কাজ করার জাজমেন্টের ওপর। আপনাকে নিয়ে যাবো ওই রাস্তায়। রাস্তা হারালে পয়সা ফেরৎ।